কেন আপনি ক্লাউড হোস্টিং ব্যবহার করবেন?

আসসালামুয়ালাইকুম। সবাই ভাল আছেন। আজকে আমি আপনাদের মাঝে ক্লাউড হোস্টিং নিয়ে কিছু বিস্তারিত আলোচনা করবো। মানে আপনি কি ক্লাউড হোস্টিং ব্যবহার করবেন। নাকি শেয়ার্ড হোস্টিং ব্যবহার করবেন। নাকি ভিপিএস হোস্টিং ব্যবহার করবেন। নাকি ডেডিকেটেড হোস্টিং এ চলে যাবেন।

আজকে আমি ক্লাউডের বিষয়টি নিয়ে মানে ক্লাউডের ভালো ভালো বিষয়টি নিয়ে আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। আবার সেয়ারেট ভিপিএস হোস্টিং নিউ আপনাদেরকে বলবো। যাতে করে আপনি একটু সঠিক সাজেশন পেতে পারেন। আপনার জন্য কোন হোস্টিং এ সেরা হবে।

আমরা যারা অনলাইনে আছে তাদের প্রত্যেকটা মানুষেরই কম বেশী ওয়েবসাইট রয়েছে। এই ওয়েবসাইটে ডাটা গুলো পোস্ট করতে আমাদের সবারই হোষ্টিংয়ের প্রয়োজন হয়ে থাকে। সে কারণে আমাদের একটি হোস্টিং প্যাকেজ চেঞ্জ করতে হয়। আর তার এজন্য আপনার কোন হোস্টিং প্যাকেজ কি দরকার সেটা নিয়ে বলবো।

আপনি যদি নতুন কোন ওয়েবসাইট করে থাকেন। মানে আপনার ওয়েবসাইট একদম নতুন। সেখানে আপনি শেয়ার্ড হোস্টিং ব্যবহার করতে পারেন। কেননা আপনার ওয়েবসাইটে যদি নতুন হয়ে থাকে তাহলে আর্নিং এর সাথে আপনার সাইটের খরচ অনেক পরিমাণে বেড়ে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে আমি বলব প্রথম অবস্থায় আপনাকে শেয়ার্ড হোস্টিং নেওয়ার জন্য। সেয়ারেট হোস্টিংয়ের সাধারণত দুই থেকে তিন হাজারের মধ্যে ভিজিটর লোড করতে পারবেন। যদি ভালো হোস্টিং হয়ে থাকে। আর যদি ভিজিটর অনেক বেশি পরিমাণে বেড়ে যায়। তাহলে এই শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার সাইটকে লোড দিতে পারবেনা। অতএব আপনার ওয়েবসাইটটি ডাউন হয়ে পড়ে রবে।

ক্লাউড হোস্টিং আপনি কখন ইউজ করবেন। যখন আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক অনেক বেশি পরিমাণে বেড়ে যাবে। মানে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর যদি চার থেকে পাঁচ হাজারের ওপর হয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে আমি মনে করি আপনার ক্লাউড হোস্টিং এর ওয়েবসাইট হোস্ট করা অত্যন্ত দরকার। কেননা সে সময় যদি আপনি শেয়ার্ড হোস্টিংয়ে থাকেন। তাহলে কিছু তো সময় আপনার ওয়েবসাইট ডাউন তো হবেই বরং আপনার ওয়েবসাইটটি অফলাইন হয়ে যেতে পারে। তাই আমি মনে করি সে সময় কি আপনাকে ক্লাউড হোস্টিং এ নিয়ে যাওয়ার জন্য। এটা আপনার ওয়েবসাইটের জন্য মঙ্গল হবে। যদিও ক্লাউড হোস্টিং খরচ অত্যন্ত আপনার বেশি পরিমাণে পড়ে থাকে। তাও আপনার ক্লাউড হোস্টিং সাইট নেওয়ার উত্তম হবে। এতে যদি কোনো ভালো প্রোভাইডার হয়ে থাকে আপনার সাইট কোন সময় ডাউন হবে না।

আশা করি সবাই আমার আর্টিকেলটি বুঝতে পেরেছেন। এবং এরকম আরও আর্টিকেল পেতে আমার ওয়েবসাইট প্রতিদিন ভিজিট করুন এবং আর্টিকেলটি যদি ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের মাঝে আমার আর্টিকেল শেয়ার করুন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *